এখনও শুনতে চাও?

0
58
তারপর সে মিলিয়ে গেল অনন্ত অন্ধকারে
চোখের নিমেষে-এতক্ষণের বর্তমান এখন
অতীত-ভবিষ্যৎ হ‌ওয়ার নিশ্চয়তা না রেখে।
নিত্য ঘটনার প্রবাহে এ বড়ো সাধারণ চরিত্র;
অবশ্য অসাধারণ হ‌ওয়ার কল্পকথায় ধুলো
জমে জীবন প্রতিনিয়ত আরো বাস্তব হয়ে ওঠে।
একে একে কবিত্ব যৌবন ছেড়ে পরিণত হয়,
আক্ষেপের সমীকরণ হয়ে ওঠে গল্প নিঃশব্দে:
'তুমি-আমি,আমরা-ওরা,আমি-বাকি' চরিত্র জোড়
এখন থেমে থাকে জ্যোতিষ্কপথের তড়িৎচুম্বকীয়
আবেশে-নিঃসঙ্গ আবেগের তরঙ্গদৈর্ঘ্যে।
কতকাল বয়ে গেছে; ভয় পেতে পেতে মরচে পড়ে
ইতিহাস হয়ে যাওয়া- মননের ছাঁচহীন চিত্রপটে।
তবুও জীবিত আমরা! উচ্ছাসহীন স্তীমিত উদ্বাস্তু।
চলার তাগিদে উদ্দেশ্য বিনা চলেছি চেনা পথে,
সুদিন আসবে,হয়তো! হয়তো? হয় তো…

রাতের ঠান্ডা ভাতে খেলা করে অবেলা,
তারপরও এ মিলিয়ে যাবে ক্লান্ত, গুমোট কলেবরে।

Leave a Reply